যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে সংঘর্ষ, আহত ৩

জেলা সংবাদ টপ নিউজ বাংলাদেশ
Share this news with friends:

মো. রাসেল ইসলাম,যশোর জেলা প্রতিনিধি: যশোরের পুলেরহাটে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে সংঘর্ষের ঘটনায় তিন কিশোর আহত হয়েছে।

সোমবার (৭ জুন) দুপুরে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে এ ঘটনাটি ঘটে।

Advertisements

আহতরা হলো- পিরোজপুর জেলার সদর উপজেলার মরিচাল গ্রামের ছওয়াব হোসেনের ছেলে হুসাইন (১৭), বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি এলাকার লাভলু হোসেনের ছেলে লিমন হোসেন (১৮) ও ফরিদপুর জেলার নগর কান্দি এলাকার ইকরাম হোসেনের ছেলে ইমারত শেখ (১৮)।

ঘটনার পর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের আনসার সদস্যরা আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহতদের মধ্যে হুসাইন হত্যা, লিমন চুরি ও ইমারত শেখ অপহরণ মামলায় শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে বন্দী হিসেবে রয়েছে।

শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের বন্দী তপু ও পাভেলের একটি পক্ষ রয়েছে। তারা কেন্দ্রর ভিতরে আধিপত্য বিস্তার করে আসছে। কেউ তাদের কথা না শুনলে নির্যাতন করে। রোববার রাত ৮টার দিকে তারা হুসাইন নামের এক বন্দীকে মারধর করে। এতে সে কেন্দ্রর উপ-পরিচালক জাকিরের নিকট অভিযোগ দেয়। এ ঘটনার জেরে সোমবার দুপুরে হুসাইনকে পাভেল ও তপু বাহিনী দেখে হাতুড়ি-রড় দিয়ে মারধর করতে থাকে। লিমন ও ইমারত হুসাইনকে বাঁচাতে গেলে তাদেরও বেধড়ক মারধর করে।

Advertisements

যশোরে পুলেরহাট শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের তিন বন্দীকে গুরুতর অবস্থায় যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কি নিয়ে বন্দিরা মারামারি করেছে সেটা জানতে পারেনি। এই ঘটনায় কারা জড়িত সেটা তদন্ত চলছে।

এদিকে আহত তিন কিশোর শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আহম্মেদ তারেক শামস।

উল্লেখ, অব্যবস্থাপনায় যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে ইমেজ সংকটে পড়েছে। গেল ১০ বছর চারবার কেন্দ্রে বিদ্রোহ ও সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। গেল বছরের তিন বন্দী কিশোরের হত্যা ও ১৫ জনের আহত হওয়ার ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়েছিল।

Advertisements
Drop your comments: