২০২২ সালে দুবাই বিমানবন্দরে বাড়বে যাত্রী চাপ

টপ নিউজ বাংলাদেশ
Share this news with friends:

২০২২ সালে দুবাই বিমানবন্দরে বাড়বে যাত্রী চাপ
অক্টোবর থেকে পুরোদমেই সব দেশে বিমান পরিচালনা করতে পারবে সংযুক্ত আরব আমিরাত। কিন্তু ব্রিটেনের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত ব্রিটেনের সঙ্গে স্বাভাবিক হবে না বিমান চলাচল।

দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরগুলোর প্রধান জানান, করোনা মহামারির প্রকোপ অনেক দেশে কমে এসেছে। তাই ভ্রমণের নিয়মনীতিতেও শিথিলতা এসেছে। ২০২২ সাল নাগাদ দুবাই বিমানবন্দরে এখনকার সময়ের চেয়ে দ্বিগুণ পর্যটক আসবে বলে প্রত্যাশা করছে দুবাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। ভ্রমণ বাড়ায় আবারও বিশ্বের ব্যস্ততম বিমানবন্দর হয়ে উঠবে দুবাই বিমানবন্দর।

Advertisements

দুবাই বিমানবন্দরের প্রধান পল গ্রিফিথস বলেন, খুব শিগগিরই যাত্রীদের চাপে পরিপূর্ণ থাকবে দুবাই এয়ারপোর্ট। দুবাইয়ের সঙ্গে বিমানে যোগাযোগে ব্রিটেন, যুক্তরাষ্ট্র আর সৌদি আরবের নিয়মনীতি শিথিল হয়েছে। গালফভুক্ত দেশগুলোতে এর বড় ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। চলতি বছরই এ অঞ্চল দিয়ে ২ কোটি ৭০ লাখ যাত্রী বিমানে চলাচল করেছে।

দুবাই বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, ৪ অক্টোবর থেকে আবারও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যস্ততম বিমানবন্দর হবে এই দুবাই এয়ারপোর্ট। এখনো বিশ্বের ব্যস্ততম বিমানবন্দর দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। সবচেয়ে বেশি যাত্রী যাতায়াত করে লন্ডনের।

ব্রিটেন জানায়, এই সপ্তাহেই যাত্রীদের জন্য নিয়মনীতি শিথিল করবে ব্রিটিশ সরকার। কাতার, সৌদি আরব, কুয়েত, বাহরাইন আর ইসরায়েল থেকে যাত্রীরা শুধু করোনার টিকা নিলেই ভ্রমণ করতে পারবেন ব্রিটেনে। করোনা পরীক্ষার প্রয়োজন পড়বে না। সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ব্রিটেন তালিকায় না রাখলেও ব্রিটিশ সরকার বলছে, মধ্যপ্রাচ্য আর উত্তর আমেরিকার জন্যেও শিথিল হবে নিয়মনীতি।

Advertisements

বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ততম বিমানবন্দরগুলোর একটি দুবাই ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট। ইউরোপ, এশিয়া, উত্তর আমেরিকা আর ওশেনিয়ার যাত্রীরাই এই বিমানবন্দরকে বিশ্বের সবচেয়ে ব্যস্ত বিমানবন্দরের অবস্থান করে দিয়েছে। আমস্টারডামের পর দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর বিশ্বের দ্বিতীয় ব্যস্ততম বিমানবন্দর। দোহা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর আছে এই তালিকার ষষ্ঠ অবস্থানে। লন্ডনের হিথ্রো বিমানবন্দর আছে তালিকায় সপ্তম অবস্থানে।

করোনা মহামারির কারণে ২০২০ সালে দুবাই এয়ার শো হয়নি। চলতি বছরের ১৪ নভেম্বর থেকে ১৮ নভেম্বর দুবাই এয়ারশো হওয়ার কথা আছে। অ্যাভিয়েশন খাতের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এই এয়ার শো ভূমিকা রাখবে বলে মনে করছেন অ্যাভিয়েশন সংশ্লিষ্টরা। এই এয়ার-শোতে থাকবে ২০টি দেশের প্যাভিলিয়ন। প্রদর্শিত হবে ১৬০টি বিমান।

Drop your comments: