রোহিঙ্গাদের গণহত্যার কথা স্বীকার করলো মিয়ানমারের দুই সেনা

আন্তর্জাতিক টপ নিউজ
Share this news with friends:

মিয়ানমারের উত্তর রাখাইন প্রদেশে বহু সংখ্যক গ্রামবাসীকে হত্যা এবং গণকবর দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে মিয়ানমারের দুই সেনা। মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) এ তথ্য জানা গেছে। ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যার বিষয় স্বীকার করে নেওয়ার পর মিয়ানমারের ওই দুই সেনাসদস্যকে নেদারল্যান্ডের হেগ শহরে নেওয়া হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ওই দুই সেনা সদস্য মিয়ানমারের উত্তর রাখাইন প্রদেশে বহু সংখ্যক গ্রামবাসীকে হত্যা এবং গণকবর দেওয়ার কথা স্বীকার করেছে। চলতি বছরে মিয়ানমারে ধারণ করা কিছু ভিডিওতে ওই দুজন নিজেদের দোষ স্বীকার করে বিবৃতি দেয়।

Advertisements

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মিয়ানমার সরকার ও সেনাবাহিনীর মুখপাত্র জবাব দেয়নি। প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলোতে বলা হয়, ওই দুই সেনাসদস্য বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান আর্মির হেফাজতে ছিল। গোষ্ঠীটির সঙ্গে বর্তমানে রাখাইনে মিয়ানমারের সরকারি বাহিনীর সংঘর্ষ চলছে।

তবে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের (আইসিসি) মুখপাত্র ফাদি এল আবদাল্লাহ বলেন, উল্লেখিত দুই সেনা সদস্যকে এখনো তারা হেফাজতে পাননি। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন সঠিক নয়।

আইসিসিতে রোহিঙ্গা সংক্রান্ত মামলায় বাংলাদেশের পক্ষের আইনজীবী পায়াম আখাভান বলেন, দুইজনকে নিরাপত্তার মধ্যে একটি সীমান্ত পোস্টে আনা হয়। তারা ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা নরনারীদের গণহত্যা ও ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেছে।

Advertisements
Drop your comments:

Leave a Reply

Your email address will not be published.