বিধিনিষেধ ভেঙ্গে ছাত্রলীগ সভাপতির উপস্থিতিতে জন্মদিন পালন

টপ নিউজ বাংলাদেশ
Share this news with friends:

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে কঠোর লকডাউন চলছে। আর সেই বিধিনিষেধ ভেঙে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ঘটা করে উদযাপন করা হলো ছাত্রলীগের এক কেন্দ্রীয় নেতার জন্মদিন। আর সেখানে উপস্থিত ছিলেন খোদ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। তার উপস্থিতিতেই কাটা হয় কেক। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) প্রাঙ্গণে আতশবাজি ফোটানো হয়।

মঙ্গলবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের অতিথি কক্ষে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাহিত্যবিষয়ক উপসম্পাদক এস এম রিয়াদ হাসানের জন্মদিন পালন করা হয়।

Advertisements

চলমান কঠোর বিধিনিষেধে সামাজিক অনুষ্ঠান যেমন, বিয়ে, জন্মদিন, বনভোজন, রাজনৈতিক ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান ইত্যাদি করা যাবে না। এই বিধিনিষেধ না মেনে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে জড়ো হন ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এরপর শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের অতিথি কক্ষে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খানের উপস্থিতিতে কাটা হয় কেন্দ্রীয় নেতা এস এম রিয়াদ হাসানের জন্মদিনের কেক।

এরপর শ খানেক নেতাকর্মীকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) এলাকায় জন্মদিনের আরেকটি কেক কাটেন রিয়াদ হাসান। রিয়াদের জন্মদিন উপলক্ষে সেখানে আতশবাজি ফোটানো হয়। জন্মদিন উপলক্ষে রিয়াদ কয়েকজন নেতাকর্মীর সঙ্গে ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়ও করেন।

এ বিষয়ে এসএম রিয়াদ হাসান বলেন, গতকাল সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসে প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছিল। মূলত বৃষ্টির কারণে তারা হলের অতিথি কক্ষে গিয়ে বসেন। হলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েই তারা অতিথি কক্ষে ঢুকেছিলেন।

Advertisements

তবে এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খানের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জহুরুল হক হলের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় বৃষ্টির সময় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খানসহ ছয়জন হলের অতিথি কক্ষে এসে বসেন। ছাত্রলীগ সভাপতি তার এক কর্মীর জন্মদিন উপলক্ষ্যে অতিথি কক্ষে শুধু কেক কাটা ও ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য ১৫ থেকে ২০ মিনিট অবস্থান করেন। পরে বৃষ্টি শেষ হওয়ামাত্র তারা হল থেকে টিএসসিতে চলে যান। সেখানে কিছুটা জনসমাগম হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, টিএসসি ও শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি দেখতে বলা হয়েছে।

Advertisements
Drop your comments: