July 18, 2024, 1:10 am
সর্বশেষ:
ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় কোটার পক্ষে মিছিল ৭৭তম বিসিএস ক্যাডারদের পুলিশ সুপারের কার্যালয় পরিদর্শন যশোর জেলায় টানা পঞ্চম বারের মতো শ্রেষ্ঠ ওসি সুমন সাতকানিয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় সিএমপি’র ইপিজেড থানার অভিযানে সাজাপ্রাপ্ত ২ আসামি গ্রেফতার বান্দরবানে সদর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থায় সাধারন সম্পাদক লুৎফুর রহমান এনবিআরের কালো আইন বাতিলের দাবিতে বেনাপোলে সিএন্ডএফ এজেন্টদের বিক্ষোভ কর্মসূচি রোটারি ক্লাব অব বান্দরবানের নতুন কমিটির অভিষেক কিশোর অপরাধ প্রতিরোধে সোনারগাঁয়ে কনসোর্টিয়াম অনুষ্ঠিত বান্দরবানে বৌদ্ধ বিহারে মিলল ভিক্ষুর ঝুলন্ত মরদেহ

বান্দরবানে আ’মীলীগ নেতার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রচার করে অর্থ আদায়ের চেষ্টার অভিযোগে সাংবাদিকের নামে মামলা

  • Last update: Wednesday, July 10, 2024

বাসুদেব বিশ্বাস, বান্দরবান: বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশের নামে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করে আবার তার কাছ থেকে অর্থ আদায়ের অভিযোগে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর নামে বান্দরবান দ্রুত বিচার আদালতে মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী লক্ষীপদ দাশ।

৯ জুলাই বান্দরবান সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর নামে আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আইন ২০০২ এর ৪ ধারায় এই মামলা দায়ের করা হয়।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, গত ২৮ মে দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় “ দলীয় পদ পদবী যেন আলাদীনের চেরাগ ” “ শুন্য থেকে কোটিপটি লক্ষীপদ দাশ ” এবং ২০ জুন “ যুগান্তর প্রতিবেদনে তোলপাড় শুন্য থেকে শত কোটি টাকার মালিক লক্ষীপদ দাশ ” নামে ২টি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ২টি প্রতিবেদনই দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর নামে প্রকাশিত হয়।

এদিকে প্রতিবেদনগুলি প্রচারের পর সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশকে কয়েকবার ফোন দেয় এবং তার সাথে দেখা করতে বলে। এদিকে কয়েকবার ফোনের কারণে সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর সাথে যোগাযোগ করে প্রকাশিত প্রতিবেদনগুলির একটি প্রতিবাদলিপি প্রকাশ করার জন্য সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম ও লক্ষীপদ দাশ কক্সবাজারের একটি রেস্টুরেন্টে সাক্ষাৎ করিলে সাংবাদিক আবুল কাশেম লক্ষীপদ দাশের কাছ থেকে ৫০লক্ষ টাকা দাবী করেন। অনেক বাক বিতন্ডার পরে ২০লক্ষ টাকা দিতে হবে বলে সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম স্থির করেন।
মামলার এজাহার সুত্রে আরো জানা যায়, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন সংবাদ পরিবেশন থেকে পরিত্রাণ পাওয়ায় জন্য বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ সাংবাদিক আবুল কাশেমকে ২লক্ষ টাকা প্রদান করে। কিন্তু ২লক্ষ টাকা দেওয়ার পর ও সাংবাদিক আবুল কাশেম সংবাদটির প্রতিবাদলিপি পত্রিকায় প্রকাশ না করে আরো ১৮লক্ষ টাকা প্রদানের জন্য কয়েকবার মোবাইল ফোনে ও ওয়াটসআপ এ কল করেন।

এদিকে সাংবাদিক মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর এমন আচরণে এবং বিভিন্ন সময় ফোনে ভয়ভীতি প্রদর্শন ও চাঁদা দাবি করার প্রেক্ষিতে বিভিন্ন সাক্ষ্যপ্রমান নিয়ে বান্দরবান সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মুহাম্মদ আবুল কাশেম এর নামে আইন শৃঙ্খলা বিঘ্নকারী অপরাধ (দ্রুত বিচার) আইন ২০০২ এর ৪ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়।

বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক লক্ষীপদ দাশ জানান, এই ঘটনায় ক্যামেরায় গৃহিত ছবি, রেকর্ডকৃত কথাবর্তাসহ দালিলিক ও প্রত্যক্ষ পরোক্ষভাবে অনেক সাক্ষী রয়েছে। আমি এই ঘটনার প্রকৃত বিচার চাই।

Drop your comments:

Please Share This Post in Your Social Media

আরও বাংলা এক্সপ্রেস সংবাদঃ
© 2023 | Bangla Express Media | All Rights Reserved
With ❤ by Tech Baksho LLC