বানিয়াচংয়ে তুলার গোডাউন আগুনে পুড়ে ভস্মীভূত

টপ নিউজ বাংলাদেশ
Share this news with friends:

শাহ সুমন, বানিয়াচং প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে একটি তুলার গোডাউন আগুনে ভস্মীভূত হয়ে গেছে। ১২ অক্টোবর বিকাল সাড়ে ৩টায় বানিয়াচংয়ের বড়বাজার সংলগ্ন সাবরেজিষ্ট্রার অফিসের দক্ষিনে শাহবাজুর রহমানের মালিকানাধীন ভাড়া ঘরে সঞ্জব আলীর তুলার গোডাউনে আগুন লেগে ভস্মীভূত হয়েছে।

বুধবার সকালে সরেজমিনে ভোরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় তুলার গোডাউনের মালিক সঞ্জব আখনজী (৫০) পোড়া গোডাউনের পাশে তুলার মিলের সামনে কর্মচারীদের নিয়ে বসে আছেন। পত্রিকার লোক পরিচয় দিতেই হাউমাউ করে কাদতে থাকেন।
বুক চাপড়ে বিলাপ করতে করতে জানান, একবার-দুবার নয় চার-চারবার আমার তুলার গোডাউনে আগুন লেগেছে। চারবারের আগুনে পুড়ে আমার সব ছাড়খার হয়ে গেছে। আগুনের পোড়ায় অন্তত আমার কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমার জীবনের সঞ্চিত সব অর্থ এমনকি কিছু জমিজামাও বিক্রি করে এখন আমি নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। তিনি প্রশ্ন করেন আগুন কি আমাকেই খুজে বেড়ায় নাকি কেউ আমাকে পুড়িয়ে মারতে চায়? অন্য কেউ তাকে আগুনে পুড়িয়ে শেষ করতে চায় এর স্বপক্ষে তিনি জানান একটি বাড়র জমি নিয়েএকজনের সাথে ৭/৮ বছর পূর্বে বিরোধ তৈরি হয়েছিলো। সেই সময় ওই ব্যাক্তি বলেছিলো তোকে আমি অস্তিত্বহীন করে ছাড়বো। এরপর থেকেই ধারাবাহিকভাবে তার তুলার গোডাউনে আগুন লাগে। যে সময়ই তুলার ঘরে আগুন লাগে এর পরের দিনই ওই ব্যাক্তি আমার উপরে একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। ঘর পুড়ার কারনে যখনই আমি চেতন হারিয়ে অস্বাভাবিক অবস্থায় থাকি সেই সুযোগে ওই লোক আমার উপর মিথ্যা মামলা করে আমাকে ভোগান্তিতে ফেলে। বারবার আগুন লাগার কারনে আমাকে এখন কেউ আর মূল বাজারে দোকান ভাড়া দেয়না। আমার গোডাউনে বিদুৎতের কোন সংযোগ ও নাই। আমার ঘর বারবার পুড়ে আর মানুষজন আমাকেই দোষারুপ করে। আমার কোন ব্যাংক লোন নাই। আমার কোন এনজিও‘র লোন ও বীমা ও নাই। তাইলে আমার কারনে কেন পুড়বে আমার ঘর। আমাকে সরকার বা কোন জনপ্রতিনিধি কি এক টাকার সাহায্য দিয়েছে কখনও। আমি আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর নিকট এর সঠিক বিচার চাই। এ ব্যাপারে বানিয়াচং বড়বাজার ব্যাবসায়ী কল্যান সমিতির সভাপতি হাজী জয়নাল আবেদীন বলেন, একই লোকের ঘরে বারবার কেন আগুন লাগে আমার মনে হয় এর একটি সঠিক তদন্ত হওয়া দরকার।

Advertisements

তার কারনে আমার অন্যান্য ব্যাবসায়ীগন রিস্কের মধ্যে আছেন। এ ব্যাপারে বানিয়াচং ফায়ার ষ্টেশনের লিডার ফয়েজ আহমেদ বলেন, আমরা ফায়ার ষ্টেশন অফিস থেকে খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে নিয়ে আসি। দোকান মালিক বলছে জনৈক ব্যাক্তির সাথে শত্রুতার কারনে তার গোডাউনে আগুন লেগেছে। তিনি চাইলে আমাদের জেলা অফিস থেকে তদন্ত করার ব্যাবস্থা করা যাবে।

Drop your comments: