টানা বৃষ্টিতে শার্শায় তলিয়ে গেছে সদ্য রোয়া আমন ধান

টপ নিউজ বাংলাদেশ
Share this news with friends:

মো. রাসেল ইসলাম, যশোর জেলা প্রতিনিধি: গত কয়েক দিনের মৃদু ঝড় ও টানা বৃষ্টিতে তলিয়ে গেছে শার্শার নিম্ন অঞ্চলের কৃষকের সদ্য রোয়া আমন ধান। পানিতে ডুবে আছে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন। ধানের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতে এ অঞ্চলের শত শত কৃষক পরিবার-পরিজন নিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। চলতি মৌসুমে আমনে চরম লোকসান ভেবে আগামীতে রবি ফসল ও বোরো মৌসুমে ফসলের আবাদ কীভাবে করবেন সেই চিন্তায় গভীর ভাবে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন তারা।

বিস্তৃর্ণ এলাকা জুড়ে শুধু পানি আর পানি। চারিদিকে থইথই করছ পানিতে ভরা ফসলের মাঠ। দেখে বোঝার উপায় নেই এখানেই ডুবে আছে কৃষকের সোনালী ফসল। গত কয়েক দিনের মৃদু বাতাস আর টানা বৃষ্টিতে শার্শা উপজেলার শত শত কৃষকের হাজার হাজার বিঘা সদ্য রোয়া আমন ধান সাথে বীজতলা তলিয়ে গেছে। আমনের পাশাপাশি অনেক কৃষকের সবজি খেতও বিনষ্ট হয়ে গেছে। কোথাও কোথাও আমন ধানের গাছ মাথা উঁচু দাঁড়িয়ে থাকলেও গত দু’দিনে তা পঁচন ধরতে শুরু করেছে । ফলে আমন ধানের ভবিষ্যত নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন কৃষকরা।

Advertisements

এদিকে আরও ২-৩ দিন বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে কিংবা পানি সরানো না গেলে আমন ধানের সাথে সবজি খেতও সম্পূর্ণভাবে বিনষ্ট হয়ে যাবে বলে আশঙ্কা করছেন কৃষকরা। উপজেলার এ সমস্ত নিম্ন অঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের কোন ব্যবস্থা নেই। ফলে বৃষ্টি বন্ধ হলে এবং কয়েকদিন আকাশ ভাল গেলে ধান গাছের মাথা জাগতে পারে। সে ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও ফসল ঘরে তুলতে পারবেন বলে জানান কৃষকরা।

শার্শা উপজেলা কৃষি অফিসার সৌতম কুমার শীল বাংলা এক্সপ্রেসকে জানান,চলতি মৌসুমে এই উপজেলায় ৫শ ৫০ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। কৃষকদের এই সংকটময় দুঃসময়ে হতাশ না হয়ে ধৈর্য ধরে দ্রুত পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করার সার্বিক ব্যবস্থা ও পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

Drop your comments: