May 24, 2022, 10:26 pm

কমলগঞ্জে ৩০টি পরিবার পানিবন্দি, উদাসীন কতৃপক্ষ

  • Last update: Sunday, May 15, 2022

তিমির বনিক, মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: লাগাদার কয়েক দিনের বর্ষণে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর বাজারের লামাবাজারস্থ শিংড়াউলির দুই পাশের বাড়িগুলোতে জলাবদ্ধতার চরম রুপধারণ করেছে।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে, অনেকের বাড়িঘরে নোংরা পানি। এই অবস্থায় এলাকার প্রায় ২৫ থেকে ৩০টি পরিবার।এ ছাড়া নোংরা পানির মধ্যে চরম দুর্ভোগে দিন কাটছে পরিবারের গুলোর। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, প্রভাবশালীরা বাসাবাড়ি তৈরী করতে গিয়ে ড্রেন দখল করে ভরাট করায় জলাবদ্ধতার সৃষ্টির মূল কারণ।প্রায় ৪ বছর পার হলেও এখন পর্যন্ত সুষ্ঠু পানি নিষ্কাশনব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। এ কারণে বর্ষা মৌসুম এলেই এলাকা জুড়ে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টিতে জলাবদ্ধতার কারণে দুর্ভোগের শেষ নেই বাসিন্দাদের। আরোও দেখা গেছে, মোঃ মখলিছ মিয়ার ভারাটিয়া ১৩টি পরিবার, সুলতান মিয়ার বাসায় ৫টি পরিবার, খোকন মিয়া ও সাংবাদিক আলম চৌধুরীর পরিবারসহ ২৫ থেকে ৩০টি পরিবার ৫ দিন ধরে পানি বন্ধি। জলাবদ্ধতার দূর্রভোগের কারণে অনেকের বাড়ির উঠোনে এমনকি ঘরের ভেতরেও জমে রয়েছে নোংরা ও দুর্গন্ধযুক্ত পানি। বাড়ি থেকে বের হওয়ার রাস্তাগুলোও ডুবে রয়েছে। খোকন মিয়ার সাথে কথা বললে তিনি বলেন, ‘বাড়িতে যাওয়া-আসার রাস্তায় কোমর সমান পানি, আবার ঘরের ভেতরেও হাঁটুপানি। এই অবস্থায় বাড়িতে বাসকরার মতো উপায় নাই। অতি কষ্টে ভোগান্তি নিয়ে মানবেতর ভাবে বসবাস করছি। বছরের পরবছর সমস্যা সমাধানের উদ্যোগ নেয়নি কেউ। চেয়ারম্যান মেম্বারদের মিথ্যা আশ্বাসে দিন পার করছি। গরীবের দুঃখ বুঝার মত কেউ নাই। এদিকে ঘুরে দেখা গেছে, পরিবার গুলার বাড়ির উঠোনে কিংবা রাস্তা চারিদিকে পানি জমে আছে। জমে থাকা পানি পচে গিয়ে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। পরিবারগুলোর লোকজন কর্দমাক্ত নোংরা পানির মধ্য দিয়ে যাতায়াত করছে। এ ছাড়া জলাবদ্ধতার কারণে অনেকের বসতঘরও ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। ছোট শিশুদের নিয়ে আতঙ্কগ্রস্তে দিন কাটছে। এব্যাপারে শমশেরনগর ইউপি পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ জুয়েল আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বারবার উদ্যোগ নিয়েও ব্যর্থ হয়েছি কেউই জায়গা ছাড়তে রাজি হননি পানি নিস্কাশনের ড্রেনেজ ব্যবস্থার জন্য। বাসা বাড়ি নির্মাণে ড্রেন বন্ধ হওয়াতে স্থানীয়রা ভোগান্তির মধ্যে রয়েছেন।

Advertisements

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিপাত উদ্দিন এর সাথে যোগাযোগ করলে জানান, বিষয়টি আমি জেনেছি। এব্যাপারে দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Drop your comments:

Please Share This Post in Your Social Media

আরও বাংলা এক্সপ্রেস সংবাদঃ
© 2022 | Bangla Express | All Rights Reserved
With ❤ by Tech Baksho LLC