খেলাধুলা টপ নিউজ

ওয়ানডের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজেও পরাজিত বাংলাদেশ

Share this news with friends:

ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচেও জয়ের সম্ভাবনা তৈরি করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ব্যাটসম্যানরা দায়িত্বশীল হতে না পারায় আবারও ব্যর্থ টাইগাররা। এবার তো পূরণ হয়েছে ব্যর্থতার ষোলোকলা! ওয়ানডেতে হোয়াইটওয়াশের পর ডি/এল মেথডে দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ২৮ রানে হেরে সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের এই সিরিজও হাতছাড়া করেছে মাহমুদউল্লাহর দল।

অথচ ১৭০ রানের লক্ষ্যে বাংলাদেশের শুরুটাও ছিল সম্ভাবনায় উজ্জ্বল। ওপেনার নাইম বরাবরের মতো মেরে খেলার চেষ্টা করেছেন। অপরপ্রান্তে থাকা লিটন দাস ব্যর্থ হয়েছেন যদিও। বেনেটের বলে পুল করতে গিয়ে ধরা পড়েছেন ফিলিপসের হাতে মাত্র ৬ রানে।

Advertisements

দ্বিতীয় ওভারে লিটন ফেরার পর অবশ্য ঝড়ো ভঙ্গিতেই খেলতে থাকেন সৌম্য সরকার। তাতে পাওয়ার প্লেতে ৬ ওভারে আসে ৫৬ রানে। এর পর তো তার বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ে মনে হচ্ছিল জয় নিয়েই মাঠ ছাড়বে বাংলাদেশ। কারণ ৫টি চার ৩ ছক্কায় ২৭ বলে তুলে ফেলেছিলেন ৫১ রান। ১০.১ ওভারে তাকে অসাধারণ ক্যাচে মিলনের তালুবন্দি করান টিম সাউদি। তখন স্কোর ছিল ১০.১ ওভারে ২ উইকেটে ৯৪।

কিন্তু সৌম্যর বিদায়ের পরই জয়ের আশা মিলিয়ে যেতে থাকে বাংলাদেশের। যাও কিছুটা সম্ভাবনা টিকে ছিল, সেটিও শেষ হয় রান রেটের সঙ্গে পাল্লা দিতে না পারায়। এর ওপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ হারায় মাহমুদউল্লাহরা।

Advertisements

শুরুতে আক্রমণাত্মক নাঈম পরে হয়ে পড়েন বাক্সবন্দী। তিনি ৩৫ বলে ৩৮ রান করে ফিরলে বাকিরাও ফিরতে থাকেন একের পর এক। মাহমুদউল্লাহ ১২ বলে বোল্ড ২১ রানে, আফিফও বোল্ড হয়েছেন মাত্র ২ রানে। এর পর ফিরেছেন মিঠুন (১)। সাইফউদ্দিন ৩ রানে ফিরলে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ১৬ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ করেছে ১৪২ রান।

ব্যাট হাতে ঝড়ের পর বল হাতে ১ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা গ্লেন ফিলিপস। এছাড়া দুটি করে উইকেট নিয়েছেন টিম সাউদি, হামিশ বেনেট ও অ্যাডাম মিলনে। এর আগে অবশ্য নেপিয়ারে বৃষ্টি বিঘ্নিত ম্যাচে ডি/এল মেথডে নির্ধারিত হয় বাংলাদেশের লক্ষ্য। ১৬ ওভারে লক্ষ্য দাঁড়ায় ১৭০ রান।

Advertisements

যদিও শুরুতে এই লক্ষ্য নির্ধারণ নিয়েই নাটক মঞ্চস্থ হয়েছে একটু। প্রথমে জানা গিয়েছিল ১৬ ওভারে বাংলাদেশকে করতে হবে ১৪৮ রান। কিন্তু পরে ম্যাচ রেফারির নির্দেশে নতুন করে জানানো হয় লক্ষ্য। ততক্ষণে অবশ্য ১.৩ ওভার বল মাঠে গড়িয়েছিল। এর পরেই নির্ধারিত হয় চূড়ান্ত লক্ষ্য।

এর আগে টস জিতে ভালো বোলিংয়ে নিউজিল্যান্ডের রাশ টেনে ধরার চেষ্টা করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ দিকে গ্লেন ফিলিপসের ঝড়ো ব্যাটে বড় সংগ্রহ পায় স্বাগতিকরা। বৃষ্টি হানার আগে ১৭.৫ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে নিউজিল্যান্ড করে ১৭৩ রান।

৩১ বলে ৫৮ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন ফিলিপস। ২৭ বলে পূরণ করেন হাফসেঞ্চুরি। ১৬ বলে ৩৪ রানের মিনি ঝড় তুলেন মিচেল। ফিলিপসের ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও দুটি ছয়। মিচেলের ইনিংসে ছিল ৬টি চার। বাংলাদেশের হয়ে ৪৫ রানে দুটি উইকেট মেহেদী হাসানের। একটি করে নিয়েছেন সাউফউদ্দিন, তাসকিন ও শরিফুল।

Drop your comments:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *