আমিরাতে সাধারণ ক্ষমার গুজব, বিভ্রান্ত হচ্ছেন প্রবাসীরা

আমিরাত সংবাদ টপ নিউজ
Share this news with friends:

আব্দুল্লাহ আল শাহীন, ইউএইঃ সংযুক্ত আরব আমিরাতে বেশ কয়েক সপ্তাহ থেকে বাংলাদেশিদের মধ্যে সাধারণ ক্ষমার মিথ্যে সংবাদের ছড়াছড়ি। বিশেষ করে যারা আমিরাতে ভিজিটে এসে অবৈধভাবে বসবাস করছেন তাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে সাধারণ ক্ষমার এই সংবাদ। প্রতিবছর আগস্ট আসলেই গুজবটি পুরো কমিউনিটি সয়লাব হয়ে যায়।

এমন গুজবের কারণে বিভ্রান্ত হচ্ছে প্রবাসীরা। ভিজিটে এসে অবৈধভাবে বসবাস করছেন এমন কয়েকজনের সঙ্গে বাংলা এক্সপ্রেসের আলাপ হয়। তাদের মধ্যে ফেনির শাকিল আহমদ বলেন, ‘দুই বছর পূর্বে ভিজিটে এসে ভিসা না লাগিয়ে অবস্থান করায় ইতোমধ্যে প্রায় লক্ষাধিক দিরহাম জরিমানা চলে এসেছে। তবে নিয়ম অনুযায়ী আবেদন করলে ৭ হাজার দিরহাম (প্রায় ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা) খরচ করে ভিসা লাগানোর সুযোগ রয়েছে। কিন্তু অনেকে বলছেন আগস্টের ১ তারিখ থেকে সাধারণ ক্ষম দেবে তাই অপেক্ষায় আছি।’

Advertisements

একইভাবে চট্টগ্রামের মাসুক আহমদ বলেন, ‘৭ মাস আগে ভিজিটে এসে ভিসা লাগানোর সুযোগ করতে না পেরে এভাবেই আছি। লোকমুখে সাধারণ ক্ষমার সংবাদ পেয়ে ভাবছি ভিসা লাগাবো।’

সাধারণ ক্ষমার সংবাদের ব্যাপারে দুবাই কনস্যুলেট কর্তৃপক্ষ বাংলা এক্সপ্রেসকে টেলিফোনে জানান, ‘আমাদের কাছে আমিরাত সরকার লিখিত এমন কোন তথ্য জানায়নি। সাধারণ ক্ষমার ব্যাপারে কোন সংবাদ এখন পর্যন্ত আমরা পাইনি।আমিরাত সরকার সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করলে অবশ্যই গণমাধ্যমে ব্রিফিং দেবে।’

২০১৮ সালের আগস্ট মাস থেকে ডিসেম্বর মাসের ৩১ তারিখ পর্যন্ত ৫ মাস ব্যাপি সাধারণ ক্ষমায় অন্তত ৫০ হাজার বাংলাদেশি আমিরাতে অবস্থানের বৈধতা অর্জন করেন। সেসময় দূতাবাস, কনস্যুলেট ও বাংলাদেশি সংবাদকর্মীরা নিয়মিত সকল আপডেট দিয়েছিলেন।

Advertisements

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের সাধারণ ক্ষমার দুবাই টিভির সংবাদটি বাংলাদেশি প্রবাসীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নতুন করে প্রচার করার মাধ্যমেই মূলত বিভ্রান্ত সৃষ্টি হয়েছে।

Drop your comments: