আমিরাত সংবাদ টপ নিউজ বিনোদন

আমিরাতে বাঙ্গালী সংস্কৃতির বিকাশ ঘটাতে ‘শেকড়ের খোঁজে’ সংগঠনের যাত্রা শুরু

সংযুক্ত আরব আমিরাতে বাঙ্গালী সংস্কৃতির প্রচার ও প্রসারের লক্ষ্যে যাত্রা শুরু হয়েছে ‘শেকড়ের খোঁজে’ নামের একটি সংগঠনের।

সম্প্রতি কাজী গুলশান আরাকে সভাপতি করে ২০ সদস্যের কার্যকরী পরিষদ ঘোষণা করা হয়েছে। এছাড়াও উপদেষ্টা ড. হাবিবুল খন্দকার, ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন, বাইজুন এন চৌধুরী ও আবুল বাশারকে উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য করা হয়েছে।

Advertisements

নব গঠিত সংগঠনের সভাপতি কাজী গুলশান আরা বলেন, ‘প্রবাসে যাদের বেড়ে ওঠা, তাদের একটা উল্লেখযোগ্য অংশেরই সময়ের সাথে সাথে দেশীয় সংস্কৃতি থেকে বিশাল একটা দূরত্ব তৈরি হয়। সুপ্রাচীন কাল থেকেই আমাদের মাঝে যে প্রবল ইচ্ছা সব সময় বিদ্যমান থাকে, সেটা হল আমরা আমাদের সন্তানদেরকে বড় করব আধুনিকতায় এবং সেই আধুনিকতায় বড় করতে গিয়ে আমরা ভুলে যাই আমাদের শেঁকড় কে, সাহিত্য-সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং ঐতিহ্যকে। আমাদের নতুন প্রজন্মের বেশির ভাগই বাংলা পড়তে বা লিখতে পারেনা। আমরা রবীন্দ্রনাথকে চিনিনা, নজরুলকে চিনিনা আর মধুসূদন জীবনানন্দ তো অনেক দূরের ব্যাপার। এভাবেই প্রজন্মের মাঝে হারিয়ে যায় কালজয়ী বোদ্ধারা এবং একই সাথে আমাদের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য।’

তিনি বলেন, ‘শেকড়ের খোঁজে শুধুমাত্র নাচ, গান বা আবৃতির কোন সংগঠন নয়। শেকড়ের খোঁজে যোগসূত্র তৈরি করবে বিশ্বের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাঙ্গালীদের মাঝে এবং বাঙালি সংস্কৃতিকে, ইতিহাসকে, সভ্যতা কে পৌঁছে দেবে এ প্রজন্মের দোরগোঁড়ায়। বাংলাকে ছড়িয়ে দেবে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে। শুধু তাই নয়, আমরা পাশে দাঁড়াবো প্রতিটি বাঙালির, যেখানেই যাদের প্রয়োজন।’

Advertisements

আরো বলেন, সংস্কৃতি হলো সেই জটিল সামগ্রিকতা যাতে অন্তর্গত আছে জ্ঞান, বিশ্বাস, নৈতিকতা, শিল্প, আইন, আচার এবং সমাজের একজন সদস্য হিসেবে মানুষের দ্বারা অর্জিত অন্য যেকোনো সম্ভাব্য সামর্থ্য বা অভ্যাস।সংস্কৃতি হল টিকে থাকার কৌশল এবং পৃথিবীতে মানুষই একমাত্র সংস্কৃতিবান প্রাণী। মানুষের এই কৌশলগুলো ভৌগোলিক, সামাজিক, জৈবিকসহ নানা বৈশিষ্ট্যের উপর নির্ভর করে।
বাংলাদেশের রয়েছে শত শত বছরের ইতিহাস ও ঐতিহ্য। বাংলাদেশের সংস্কৃতি স্বকীয় বৈশিষ্ট্যের কারণে স্বমহিমায় উজ্জ্বল। বাংলাদেশ পৃথিবীর সমৃদ্ধ সংস্কৃতির ধারণকারী দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম।’

কার্যকরী পরিষদের অন্যান্য সদস্যরা হলেন, সহ-সভাপতি বেলায়াত হিরু, আনন্দিতা খান সুমি। সাধারণ সম্পাদক জাবেদ আহমদ মাছুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-১ এনামুল করিম রবিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক-২ সামিদা চৌধুরী পপি, সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন রেজা, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক আরিফা নুশরাত, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সৈয়দ আরিফ, যুগ্ম সাংস্কৃতিক সম্পাদক-১ লুৎফুর রশীদ রাসেল, যুগ্ম সাংস্কৃতিক সম্পাদক-২ আশিকুর রহমান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক মাকসুদা খানম, যুগ্ম শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক -১ নাজনীন আক্তার, যুগ্ম শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক-২ আলা মোকাদ্দেস, প্রচার সম্পাদক, সামসদ্দিন ফারুক সুমন, দপ্তর সম্পাদক সারোয়ার জামান জাবেদ।

Advertisements
Drop your comments:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Pin It on Pinterest