February 1, 2023, 7:44 am
সর্বশেষ:
ঠাকুরগাঁওয়ে শহীদ কমরেড কম্পরাম সিংহ স্মৃতি কমপ্লেক্স উদ্বোধন বানিয়াচংয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় সিএনজি স্ট্যান্ড ম্যানেজারকে জরিমানা আমিরাতে ফ্রন্টলাইন করোনাযোদ্ধা মামুনুর রশীদ গোল্ডেন ভিসায় সম্মানিত সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনী দেশের গণতন্ত্রকে শক্তিশালী করেছে: প্রধানমন্ত্রী মোংলা ইপিজেডে ভিআইপি কারখানায় আগুন দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশ ১২তমঃ টিআই তারেক রহমান ও জোবায়দাকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দিয়ে গেজেট প্রকাশ বাঘের অবয়ব তৈরী করল বনবিভাগ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ওআইসি সদস্যভুক্ত সাত দেশের রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে ফের বাড়লো বিদ্যুতের দাম

সংসদ থেকে পদত্যাগের পর বিএনপি ছাড়লেন আব্দুস সত্তার ভূঁইয়া

  • Last update: Saturday, December 31, 2022

জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগের পর এবার বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টার পদও ছাড়লেন আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া। গত বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি।

আজ শনিবার (৩১ ডিসেম্বর) রাতে তিনি নিজেই এই তথ্য নিশ্চিত করেন। বিএনপি থেকে পদত্যাগের কারণ জানতে চাইলে দলের প্রতি অভিমান আর ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাবেক এই সংসদ। বলেন, এখন বয়স হয়েছে। আগের মতো দলের জন্য সময় দিতে পারি না। দলও মনে করে না, আমাদের আর কোনো প্রয়োজন আছে। দলের জেলা ও উপজেলা কমিটিও কোনো কিছু করার ক্ষেত্রে পরামর্শ নেয় না, জিজ্ঞেসও করে না। এতে খারাপ লাগে। এখন মনে হচ্ছে হয়তো দলে আর আমাদের প্রয়োজন নাই। এই অবস্থায় পরিবারের সঙ্গে কথা বলে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

Advertisements

একইসঙ্গে, সংসদ থেকে বিএনপির এমপিদের পদত্যাগের দলীয় সিদ্ধান্তটি সঠিক ছিল না বলেও মনে করছেন আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া। বললেন, দলের সকল সিদ্ধান্ত সারাজীবন মেনে এসেছি। কিন্তু সংসদ সদস্যদের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত দূরদর্শী ছিল না। যদি আমাদের সঙ্গে দল এই বিষয়ে পরামর্শ করতো, তাহলে হয়তো ভালো পরামর্শ দিতে পারতাম। তারপরেও দল সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যে কারণে আমরা এটা মানতে বাধ্য।

১৯৭৯ সালে প্রথম তৎকালীন কুমিল্লা-১ (নাসিরনগর ও সরাইলের একাংশ) থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সংসদ সদস্য
নির্বাচিত হন আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া। ওই সময় তিনি ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা সহসভাপতি ছিলেন। দল থেকে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছিলেন তিনি। এরপর ১৯৯১ সালে এবং ১৯৯৬ সালের দুইটি সংসদ
নির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের নির্বাচনে চারদলীয় জোটের শীর্ষ নেতা ইসলামী ঐক্যজোটের তৎকালীন চেয়ারম্যান মুফতি ফজলুল হক আমিনীকে আসনটি ছেড়ে দেন আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া। ওই সময় বিএনপির নেতৃত্বাধীন চারদলীয় জোট সরকার গঠন করলে তাকে টেকনোক্রেট প্রতিমন্ত্রী করা হয়। জোট সরকারের বিভিন্ন সময়ে চারটি মন্ত্রণালয়ে (আইন, ভূমি, মৎস্য এবং বিদ্যুৎ) দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

Advertisements

২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও ব্রাহ্মনবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ আসনে) আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া ধানের শীষ প্রতীকে বিজয়ী হয়েছিলেন।

বিএনপি দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ১১ ডিসেম্বর বিএনপির অন্য ছয় এমপির সঙ্গে তিনিও জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগপত্র জমা দেন।

Drop your comments:

Please Share This Post in Your Social Media

আরও বাংলা এক্সপ্রেস সংবাদঃ
© 2022 | Bangla Express | All Rights Reserved
With ❤ by Tech Baksho LLC